1. info@www.newsibangla.com : news :
গেল দুই নির্বাচনে ‘কামডা’ আমরাই করছিলাম: জাহাঙ্গীর আলম - News i Bangla
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৩:৩০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আতাউর রহমান মিল্টন বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত ডোমার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত সরকার ফারহানা আখতার সুমি চট্টগ্রামে র‌্যাবের পাতা ফাঁদে আঁটকে গেল ৪ চাঁদাবাজ নাজাত যেন মেলে নালিতাবাড়ীতে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের গণসংযোগ এক বছরের মাথায় চিলাহাটি এক্সপ্রেস কোচ লক্কড়ঝক্কড় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক/কর্মচারী যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গাজীপুরের শ্রীপুরে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত চিলাহাটিতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শেকড়ের সন্ধানে শীর্ষক সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে সপ্তম মিলনমেলা

গেল দুই নির্বাচনে ‘কামডা’ আমরাই করছিলাম: জাহাঙ্গীর আলম

সাবরিনা জাহান
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৩৭ বার পড়া হয়েছে

সাবরিনা জাহান, গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি:দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের নির্বাচনী জনসভায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ‘এইবার বুইঝা-শুইনাই মাঠে নামছি। বুইঝা-শুইনাই নামছি চোর ক্যামনে আটকাইতে হয়। ২০১৪ এবং ১৮ সালে (জাতীয় নির্বাচনে) কামডা আমরাই কইরা দিছিলাম। এইবার ক্যামনে আটকাইতে হয়, হেইডা আমরা জানি। হ্যারা কী করতে চাইতেছে সব জানি। এইডা দেখবেন, ৭ জানুয়ারি প্রমাণ কইরা দিমু। আপনারা শুধু ভোট কেন্দ্রে যাইয়েন, আর ভোটটা দিয়েন। রক্ষা কেমনে করতে হয়, হেইডা আমরা দেইহা দিমু।’

শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুরে গাজীপুর-১ (কালিয়াকৈর-গাজীপুর সিটি করপোরেশনের একাংশ) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেলের কালিয়াকৈর উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের মাঠে তিনি এসব কথা বলেন। তার এমন বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে এলাকায় আলোচনার জন্ম দিয়েছে।এর আগের দুই নির্বাচনে ‘কামডা’ আমরাই করছিলাম : তিনি বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে গেছিল সবাই। তারা কইছে, এইবার একটু স্বতন্ত্রকে ঘুরাইয়া দেন।
প্রধানমন্ত্রী কইছে— ‘‘১৫ বছর আমি দেখছি। আমি ১৫ বছর দেখছি মানুষকে কী সার্ভিসটা দিছেন, এইবার সেই পরীক্ষাটা জনগণকে দিয়ে আসেন।’’ পরে গেছে পার্টির সাধারণ সম্পাদকের কাছে। গিয়া কইছে স্বতন্ত্ররে আর জাহাঙ্গীররে একটু থামায়া দেন। হ্যারে সাধারণ সম্পাদক কইছে— ‘‘আপনি যদি মন্ত্রী হইয়া স্বতন্ত্রকে ভয় পান তাইলে নির্বাচনে দাঁড়াইলেন কেন?’’’জাহাঙ্গীর আলম আরও বলেন, ‘অনেকেই বলে ভোট দিবো ট্রাকে, যাইবোগা হের মার্কায়। আমি আপনাগো বইলা যাই। ২০১৪ করেছি, ২০১৮ করেছি, এটা ২০২৩ সাল। আমার মা জায়েদা খাতুন একজন নারী। কোনও পার্টি ছিল না, কোনো দল ছিল না, একটা বড় নেতা ছিল না। রাষ্ট্রের যন্ত্র সব ব্যবহার করছিল। একটা ভোটও চুরি করতে পারে নাই। এটা তো পুরুষ মানুষের ভোট। বাক্সের মধ্যে হাত দিব আর চুরি ছিনতাই করবো, হেইডা পারবো না।’

জাহাঙ্গীর আলম আরও বলেন, ‘আ ক ম মোজাম্মেল হক কালিয়াকৈরে ৫ বছরের এমপি ও ১০ বছরের মন্ত্রী। অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, যাকে আমরা মন্ত্রী বানিয়েছি, পার্লামেন্টে পাঠিয়েছি, যাকে আমরা সর্বোচ্চ সম্মান দিয়ে এলাকার মানুষের শাসনের জন্য নিয়ে এসেছিলাম; দীর্ঘ ১৫ বছর শাসনের নামে মানুষকে শোষণ করা হয়েছে।’মন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি আরও বলেন, ‘তার দায়িত্ব হচ্ছে এলাকার মানুষের সুখে-দুঃখে থাকা। কিন্তু দুঃখের বিষয়, আমাদের মন্ত্রীকে দেখলাম, প্রতি এলাকায় দুই-তিনজন করে মানুষ সেটেল করছেন, এখানে কিছু ফ্যাক্টরি আছে, কিছু ঝুট আছে, এই ঝুটগুলো খাওয়ার জন্য মন্ত্রী প্রতিটি এলাকায় দুই-চারজন লোক বের করে শাসনব্যবস্থা চালাচ্ছেন।’

এসব বিষয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা তাকে থামানোর জন্য কোথাও যাইনি, যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। আমরা যদি প্রধানমন্ত্রীর কাছে, দলের কাছে গিয়ে থাকি, তাহলে কি সে কাউকেই মানে না। এটাই বোঝাতে চাইছে। তার বিষয়ে কথা বলতে চাই না। তার মুখে যখন যা আসে, তা-ই বলেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং