1. sumondomar2021@gmail.com : sumon islam : sumon islam
  2. info@www.newsibangla.com : news :
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
তজুমদ্দিনে “মহান শহীদ দিবস” ও “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস” পালিত হয়েছে হাতীবান্ধায় মাদকসহ জলঢাকা পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আটক নড়াইলে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত।এসপি মেহেদী হাসান পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ফরিদপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রভাত ফেরী অনুষ্ঠিত ও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন চাঁপাই প্রেসক্লাবের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন লালমোহনে “মহান শহীদ দিবস” ও “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস” পালিত হয়েছে সমাপনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো জসিম পল্লী মেলা ৬ নং মাড়েয়া বামন হাট ইউনিয়নে ভাষা শহিদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধাজ্ঞাপন দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে বিজিবি কর্তৃক ৮ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস ভাঙ্গায়  ৩ দিন ধরে এক স্কুল ছাত্র নিখোঁজ

রংপুরে খড়কুটা জ্বালিয়ে আগুনের উত্তাপ নিতে গিয়ে দ্বগ্ধ হচ্ছেন সাধারণ মানুষ

রিয়াজুল হক সাগর
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৪২ বার পড়া হয়েছে

রিয়াজুল হক সাগর,রংপুর: রংপুর অঞ্চলে শীতের তীব্রতা যতই বাড়ছে ততই আগুনে পোড়া রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গত এক সপ্তাহে কমপক্ষে ৩৫ জন শীতের হাত থেকে রক্ষা পেতে খড়কুটা জ্বালিয়ে আগুনের উত্তাপ নিতে গিয়ে দ্বগ্ধ হয়েছেন। রমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডে আগুনে পোড়া এসব রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বুধবার দুপুরে রমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিট গিয়ে জানা গেছে, বর্তমানে রমেক হাসপাতালে দগ্ধ রোগী রয়েছেন ৩৪ জন। এর মধ্যে ১১ জন বার্ন ইউনিটে, ৬ নং ওয়ার্ডে ১৬ জন, ১৬ নং ওয়ার্ডে ১২ জন এবং ৩৭ নং ওয়ার্ডে ৯ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে শীতের হাত থেকে বাঁচতে খড়-কুটা জ্বালিয়ে উত্তাপ নেয়ার সময় রংপুর ও আশপাশ এলাকায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ১১ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদের কয়েকজনের শরীর ৪০ শাতাংশ পুড়ে গেছে। বার্ন ইউনিটে কথা হয়, কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলা থেকে আসা ববিতা রানীর স্বজনের সাথে। মঙ্গলবার বাড়িতে খড়কুটা জ্বালিয়ে উত্তাপ নিয়ে গিয়ে দগ্ধ হন তিনি। তাকে কুড়িগ্রাম থেকে রমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। কুড়িগ্রাম থেকে এসেছে আয়শা আক্তার নামে ৪ বছরের শিশু।

তার মা শাহানা বেগম জানালেন চুলার আগুনে উত্তাপ নিতে গিয়ে তার মেয়ে দগ্ধ হয়েছেন মঙ্গলবার। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুয়ায়ি তাকে রমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার সকালে রংপুর নগরীর আলেয়া বেগম আগুন তাপাতে গিয়ে দগ্ধ হয়েছেন। তার দেহের ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে। মঙ্গলবার রাতে এসেছেন লালমনিরহাটের ভেলাগুড়ি এলাকার পলি বানী (৩৫)। তার শাশুড়ি আরতি রানী বলেন, শীতের হাত থেকে বাঁচতে উত্তাপ নিতে গিয়ে দগ্ধ হয়েছেন। তার দেহের অধিকাংশ স্থান পুড়ে গেছে।

বার্ন ইউনিট বাদে অন্যান্য ওয়ার্ডে যেসব আগুনে পোড়া রোগী চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের রেজিস্টার্ড ডা. শাহ মোহাম্মদ আল মুকিত জানান, প্রতিবছরই আগুন তাপাতে গিয়ে দগ্ধ ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। এ জন্য জনগণের সচেনতা প্রয়োজন। আমরা সব সময়ই পরামর্শ দিচ্ছি শীতের হাত থেকে বাঁচতে যাতে কেউ খড়কুটা জ্বালিয়ে আগুন না তাপায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং