1. sumondomar2021@gmail.com : sumon islam : sumon islam
  2. info@www.newsibangla.com : news :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
ডোমার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত সরকার ফারহানা আখতার সুমি চট্টগ্রামে র‌্যাবের পাতা ফাঁদে আঁটকে গেল ৪ চাঁদাবাজ নাজাত যেন মেলে নালিতাবাড়ীতে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের গণসংযোগ এক বছরের মাথায় চিলাহাটি এক্সপ্রেস কোচ লক্কড়ঝক্কড় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক/কর্মচারী যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গাজীপুরের শ্রীপুরে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত চিলাহাটিতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শেকড়ের সন্ধানে শীর্ষক সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে সপ্তম মিলনমেলা ফুলবাড়ীতে জাতীয় ভোটার দিবস পালিত

ভাঙা রাস্তায় ঝাঁকুনি খেল অ্যাম্বুলেন্স, বেঁচে উঠলেন ‘মৃত’ ব্যক্তি

আনোয়ার হোসেন (রাজ)
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২৩ বার পড়া হয়েছে

আনোয়ার হোসেন (রাজ) কচুয়া চাদঁপুর, প্রতিনিধি:
হাসপাতাল থেকে মৃত ঘোষণা করার পর অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল ৮০ বছরের এক বৃদ্ধের মরদেহ। বাড়িতে খবর পৌঁছাতেই প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছিল শেষকৃত্যের। তবে পুরো পরিস্থিতি পাল্টে যায় মাঝ রাস্তায়।

ভারতের হরিয়ানার কার্নালের বাসিন্দা দর্শন সিং। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি হৃদরোগের সমস্যায় ভুগছিলেন। ভর্তি ছিলেন স্থানীয় একটি হাসপাতালে। গত বৃহস্পতিবার হঠাৎই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। ভেন্টিলেটরে দেওয়া হয় তাঁকে, কিন্তু সাড়া মেলেনি। এরপরই চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পরিবারের সদস্যরা মৃতদেহ নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। অ্যাম্বুলেন্সে ছিলেন তাঁর ছেলে ও অন্য কয়েকজন সদস্য। মাঝপথে হঠাৎ অ্যাম্বুলেন্সের চাকা গর্তে পড়ে যায়। এসময় ঝাঁকুনিতে কেঁপে ওঠে সবকিছু। তখনই দর্শনের ছেলে খেয়াল করেন, নড়ে উঠেছে তাঁর বাবার হাত। প্রথমে ভেবেছিলেন চোখের ভুল। কিন্তু পাশে বসে থাকা আরেক পরিজনও খেয়াল করেন যে দর্শনের শরীর নড়াচড়া করছে।

এমন দেখে পরিবারের সদস্যরা দর্শনকে দ্রুত রাওয়াল নামের একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসকরা

পরীক্ষা করে জানান, সত্যিই ওই বৃদ্ধ বেঁচে রয়েছেন। বর্তমানে দর্শন ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

হাসপাতালটির চিকিৎসক নেত্রপাল বলেন, ‘যখন তাকে আমাদের কাছে আনা হয়েছিল, তখন তাঁর শ্বাসকষ্ট ছিল। তার রক্তচাপ ছিল এবং হৃদস্পন্দন চলছিল। আমরা জানি না অন্য হাসপাতালে কী ঘটেছে। তাঁর মৃত্যুর ঘটনা একটি প্রযুক্তিগত ত্রুটি ছিল নাকি অন্য কিছু তা বলতে পারছি না।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং