1. sumondomar2021@gmail.com : sumon islam : sumon islam
  2. info@www.newsibangla.com : news :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৭:০২ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
ডোমার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত সরকার ফারহানা আখতার সুমি চট্টগ্রামে র‌্যাবের পাতা ফাঁদে আঁটকে গেল ৪ চাঁদাবাজ নাজাত যেন মেলে নালিতাবাড়ীতে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের গণসংযোগ এক বছরের মাথায় চিলাহাটি এক্সপ্রেস কোচ লক্কড়ঝক্কড় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক/কর্মচারী যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গাজীপুরের শ্রীপুরে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত চিলাহাটিতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শেকড়ের সন্ধানে শীর্ষক সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে সপ্তম মিলনমেলা ফুলবাড়ীতে জাতীয় ভোটার দিবস পালিত

নতুন রাস্তা পেয়ে খুশি এলাকাবাসী নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রাখলেন: মেয়র আনিছুর

অনলাইন ডেক্স
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২৫ বার পড়া হয়েছে

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার হাজার মানুষের চলাচলের জন্য ইট সোলিং রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে দুই যুগ পরে চলাচলের জন্য রাস্তা পেয়ে স্বপ্ন পূরণ হলো গ্রামবাসীর। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার ১ নং ওয়ার্ডের কালিকাপুর ঘোলাগাড়ী মহল্লার দীর্ঘদিনের ভোগান্তি এড়াতে ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ইট সোলিং রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান।

জানা গেছে, বৃষ্টির দিনে কালিকাপুর ঘোলা গাড়ী রাস্তা চলাচলের অযোগ্য ছিল। প্রথম ধাপে গতবছর এই রাস্তার আংশিক সোলিং কাজ ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়। এই বছর দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। ইট সোলিং কাজ করায় জনগণের দুর্ভোগের অবসান ঘটবে ।

পৌর বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানান, নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার ঘোলাগাড়ী মহল্লা বাসী দীর্ঘ দিন ধরে এই রাস্তার দাবি করে আসছিলো । কিন্তু কেউ কথা রাখেনি, আমরা নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলাম।এখন এই অবহেলিত রাস্তা ইট সোলিং করে মেয়র আনিছুর রহমান তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করলো । মেয়রকে প্রতিশ্রুতি রক্ষার জন্য ধন্যবাদ।নতুন রাস্তা পেয়ে খুশি আমরা।
পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান বলেন, পৌর এলাকার কালিকাপুর ঘোলাগাড়ী মহল্লা বাসী রাস্তার জন্য চরম জনদুর্ভোগে ছিলো ।একটু বৃষ্টি হলেই কাদা হতো। জনসাধারণের চলাফেরা, অসুস্থ ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার জন্য কোন রাস্তায় ছিলো না। নতুন আঙ্গিকে এই রাস্তা নির্মিত হলো এবং নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিল। প্রথম ধাপে গতবছর এই রাস্তার আংশিক সোলিং কাজ ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়। এই বছর দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। ২৩ বছর পর জনগণের দূর্ভোগের অবসান ঘটলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং