1. sumondomar2021@gmail.com : sumon islam : sumon islam
  2. info@www.newsibangla.com : news :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৮:৪৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
ডোমার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত সরকার ফারহানা আখতার সুমি চট্টগ্রামে র‌্যাবের পাতা ফাঁদে আঁটকে গেল ৪ চাঁদাবাজ নাজাত যেন মেলে নালিতাবাড়ীতে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের গণসংযোগ এক বছরের মাথায় চিলাহাটি এক্সপ্রেস কোচ লক্কড়ঝক্কড় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক/কর্মচারী যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গাজীপুরের শ্রীপুরে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত চিলাহাটিতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শেকড়ের সন্ধানে শীর্ষক সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে সপ্তম মিলনমেলা ফুলবাড়ীতে জাতীয় ভোটার দিবস পালিত

জলঢাকায় ৪ লক্ষ মানুষের স্থলে ৪,৪০০ পিচ কম্বল কনকনে শীতে জবুথবু নিম্ন আয়ের মানুষ

লাল মিয়া জাহিদ
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

মোঃ লাল মিয়া (জাহিদ), জলঢাকা (নীলফামারী) সংবাদ দাতাঃ উত্তরের জেলা নীলফামারীতে বেড়েছে শীতের তীব্রতা। তাপমাত্রা কমে যাওয়ার পাশাপাশি হিমেল হাওয়া এবং গুড়িগুড়ি বৃষ্টির মতো শিশিরে এ জেলার তিস্তার তীরবর্তী জলঢাকা সহ সবকটি উপজেলায় বইছে শৈত্যপ্রবাহ। শীতের তাণ্ডব বেড়ে যাওয়ার ফলে যেখানে আগুন জ্বালানো হচ্ছে, সেখানেই জড়ো হচ্ছেন মানুষ।

ঠান্ডায় কাহিল হয়ে পড়েছে নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ। শীতার্ত এসব মানুষ খরকুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। হাসপাতাল গুলোতেও বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। জলঢাকা উপজেলায় প্রায় ৪ লক্ষ মানুষের স্থলে ৪ হাজার ৪’শ কম্বল বরাদ্দ পেয়ে বিতরণ করা হয়েছে।

দিনরাত সমানতালে গুড়িগুড়ি বৃষ্টির মতো শিশিরে জবুথবু হয়ে পড়া এসব মানুষ ভীড় জমাচ্ছেন পুরাতন কাপড়ের দোকানগুলোতে। তাদের মধ্যে মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজনদের লক্ষ করা গেছে সবচেয়ে বেশি। শীতের কারণে আয়-রোজগার কমে যাওয়ায় নিদারুণ কষ্টের কথা জানান নিম্ন আয়ের লোকজন।

পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আমরুলবাড়ি গ্রামের কৃষ্ণ চন্দ্র রায় ও কৈমারী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড গাবরোল হাজ্বী পাড়ার হাসানুজ্জামান সিদ্দিকী বলেন, আজ বেশ কয়েকদিন ধরে ঠাণ্ডার কারণে বাহিরে বের হতে পারছিনা। গেলো বছর সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি এনজিও – সংস্থা এমন কি অনেক রাজনৈতিক নেতাদেরকেও গরীব অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করতে দেখা গেছে।

কিন্তু চলতি বছরে প্রচণ্ড এ শীতেও কাউকে শীতবস্ত্র দিতে দেখা গেলনা। তারা আরো বলেছেন, নির্বাচন সামনে আসলে গরীবের দুয়ারে হাতির পা পড়ে আর নির্বাচন গেলে সবাই মুখ ফিরিয়ে নেয়। চর এলাকার আবু মুসা জানায়, জীবন জীবিকার তাগিদে খুব কষ্ট হলেও কাজে বের হতে হয়েছে উপায় নেই।

তবে অন্তত বিত্তশালীদের উচিৎ এই শীতে মানুষের পাশে দাঁড়ানো। এদিকে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সুত্রে জানা গেছে, জলঢাকা উপজেলায় সরকারিভাবে চার হাজার চার’শ (৪,৪০০) পিচ কম্বল বরাদ্দ পেয়ে নির্বাচনের পর ১১টি ইউনিয়নের প্রতিটিতে চার’শ করে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এবিষয়ে ইউএনও জি.আর সারোয়ার এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, পিআইও অফিসে খোজঁ নেন, আমি এখানে যোগদানের আগে যা বরাদ্দ এসেছে সেগুলোই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং