1. info@www.newsibangla.com : news :
হিজলার অধিকাংশ ইটবাটা অবৈধ, হুমকির মুখে ফসলি জমি, নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ - News i Bangla
শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ১০:১১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আতাউর রহমান মিল্টন বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত ডোমার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত সরকার ফারহানা আখতার সুমি চট্টগ্রামে র‌্যাবের পাতা ফাঁদে আঁটকে গেল ৪ চাঁদাবাজ নাজাত যেন মেলে নালিতাবাড়ীতে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের গণসংযোগ এক বছরের মাথায় চিলাহাটি এক্সপ্রেস কোচ লক্কড়ঝক্কড় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক/কর্মচারী যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গাজীপুরের শ্রীপুরে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত চিলাহাটিতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শেকড়ের সন্ধানে শীর্ষক সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে সপ্তম মিলনমেলা

হিজলার অধিকাংশ ইটবাটা অবৈধ, হুমকির মুখে ফসলি জমি, নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ

মোঃ জাহিদ হোসেন
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১৯৭ বার পড়া হয়েছে

মোঃ জাহিদ হোসেন, হিজলা উপজেলা প্রতিনিধিঃ

বরিশাল জেলার হিজলা উপজেলার নদী ও খালের পারে অবৈধ ইটবাটার লীলাখেলা, সব মিলিয়ে প্রায় ৭০ বা ৭৫ টার মত রয়েছে ইটবাটা।যার ৬০ থেকে ৬৫ টাই অবৈধ বলে জানা গেছে।পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে এসব বাটার কোন অনুমতি নাই। দেশের সব অবৈধ ইটবাটা বন্ধ করা হাইকোর্টের নির্দেশ হলেও হিজলার অবৈধ ইটবাটা যেন ধরা ছোয়ার বাইরে।

গত ২৪ জানুয়ারী রহস্যজনক ভাবে রিয়াজ তালুকদারের ইটবাটা ভেঙে দিলেও বাকি অবৈধ বাটার ব্যাপারে প্রশাসনের ভূমিকা রহস্য জনক।নাই কোন ভূমিকা। যা সাধারণ জনগণের মাঝে দ্বিধা সৃষ্টি করছে।

এসমস্ত অবৈধ ইটবাটায় ইট পোড়াতে ব্যবহার করা হচ্ছে কয়লার পরিবর্তে কাঠ,এলাকার ফসলি কৃষিজমির মাটি দিয়ে ইট তৈরি করা হচ্ছে। জ্বালানি হিসেবে পোড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন গাছের কাঠ। মাটি বহন করতে ট্রাক্টরের চলাচলে গ্রামীণ সড়কগুলো বেহাল হয়ে পড়েছে। ক্ষেতে ধুলার স্তর পড়ে নষ্ট হচ্ছে ফসল। কিন্তু কেউ যেন দেখার মত নেই।

ইটভাটার ১০০ গজ এলাকার মধ্যে বসবাস করা কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, ইটবোঝাই গাড়ি সারাদিন-রাত চলাচল করে। গাড়ি যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ধুলা উড়ে ঘর-বাড়িতে পড়ছে। ভাতের সঙ্গে ধুলাও খেতে হচ্ছে। বাড়ির গাছের পাতায় ধুলা পড়ে জমে রয়েছে। অনেকসময় শ্বাসকষ্ট নিয়ে দিন কাটাতে হয়।তা ছাড়াও বাচ্চাদের স্কুলে যেতে আসতে কষ্ট হয়, রয়েছে স্বাস্থ্যের ঝুকি।

অনতি বিলম্বে যদি এই অবৈধ ইট বাটার লাগাম টেনে ধরা না যায় তাহলে ভবিষ্যতে আরো খারাপ পরিস্থিতির সম্মুখীন হবে বলে ধারণা করেছেন বিজ্ঞ জনরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং